কাবিনের টাকা না দিয়ে উধাও লন্ডনী মনসুর

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ব্রিকলেন নিউজ:

জলসুখা গ্রামের ইংল্যান্ডপ্রবাসী মনসুরের মালামাল ক্রোকের আদেশ দিয়েছে আদালত ॥
স্টাফ রিপোর্টার ॥ তালাক সম্পন্ন হওয়ার সত্তেও কাবিনের টাকা না দিয়ে উধাও হয়ে গেছে জলসুখা গ্রামের ইংল্যান্ড প্রবাসী মনসুর আল হাসান চৌধুরী। মনসুরের পরিবারের কাছে বারবার ধর্ণা দিয়েও কোন সুরাহা না পেয়ে আদালতের দারস্থ হয়েছেন স্ত্রী ফারহানা। স্ত্রী কাবিন টাকার জন্য আদালতে মামলা করলে আদালত তার মালমাল ক্রোকের নির্দেশ দেন। স্ত্রীর করা আরেক মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়াণা জারি করেছে আদালত।
পলাতক মনসুর আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা গ্রামের হাজী মৃত মুকিত চৌধুরীর পুত্র।
মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, আজমিরীগঞ্জ উপজেলার জলসুখা গ্রামের হাজী মৃত আব্দুল মুকিত চৌধুরীর পূত্র ইংল্যান্ড প্রবাসী মনসুরের সাথে মাধবপুর উপজেলার আন্দিউড়া গ্রামের ফয়েজ আলী চৌধুরীর মেয়ে ফারহানা চৌধুরীর সাথে ২০২০ সালের অক্টোবর মাসে বিবাহ অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু বিয়ের পরদিন থেকেই যৌতুকের দাবিতে ফারহানাকে অপমান অপদস্থ ও পারিবারিক চাপ শুরু করে মনসুর আর তার পরিবারের লোকজন।এভাবে নিযার্তন চলতে থাকলে বাধ্য হয়ে কিছুদিন পর ফারহানা বাবার বাড়িতে চলে আসে। এ নিয়ে দুই পরিবারের ঝামেলা সৃষ্টি হয়।ঝামেলা সমাধানের জন্য মনসুর ও তার পরিবারের সদস্যদের সাথে যোগাযোগে ব্যর্থ হয়ে স্ত্রী ফারহানা আইনের সাহায্য নেন।কোন ধরনের সমাধান বা সহযোগিতা ছাড়াই ইংল্যান্ড পালিয়ে যায় মনসুর। এরপর থেকে আর দেশে ফিরে আসেনি মনসুর। দেনমোহরের টাকা জন্য মনসুরের পরিবারের সাথে বারাবার ধর্ণা দিলেও কোন সুরাহা পায়নি ফারহানার পরিবার। এমনকি ইংল্যান্ডে মনসুরের সাথে যোগাযোগ করতে ব্যর্থ হয়। পরে বাধ্য হয়ে ২০২১ সালের ১৮ অক্টোবর পারিবারিক আদালতে কাবিনের টাকার জন্য মামলা দায়ের করেন। মামলার দুইজনের সাক্ষী গ্রহণ শেষে ২০২৩ সালের ১২ মার্চ আদালতের বিচারক ১০লাখ ৩০ হাজার টাকা প্রদানের জন্য মনসুরকে নির্দেশ দেন। কিন্তু মনসুর ইংল্যান্ডে পলাতক থাকায় এই রায় কার্যকর হয়নি। পরে আদালতে তার মামলমাল ক্রোক করার আদেশ দেন। পরে ফারহানা ২০২৩ সালের ১০ এপ্রিল মনসুরকে আসামী করে পারিবারিক জারি মকদ্দমা করেন। এ মামলায় তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়াণা জারি করেছেন আদালত।
এ ব্যাপারে বাদিপক্ষের আইনজীবি এডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান বলেন- ফারহানা পারিবারিক আদালতে মামলা দায়ের করলে আদালত মনসুরকে কাবিনের ১০ লাখ ৩০ হাজার টাকা দিতে আদেশ দেয়। কিন্তু সেই আদেশ কার্যকর না হওয়ায় পরে আদালতে তার ন্থাবর- অস্থাবর সম্পতি ক্রোক করার আদেশ দেন।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

আরো পড়ুন

সর্বশেষ খবর

পুরাতন খবর

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১